‘আমার বিক্রমপুর’ এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ৪৫ জন গুনীজনকে সম্মাননা প্রদান

সমকালীন মুন্সীগঞ্জ ডেক্স, ১১ আগষ্ট ২০২০:

মুন্সীগঞ্জের শীর্ষ স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘আমার বিক্রমপুর’ ৫ পেরিয়ে ৬ বছরে পদার্পণ করেছে ।

এ অনলাইন পত্রিকাটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মঙ্গলবার (১১ আগষ্ট) মঙ্গলবার বেলা ৩ টায় মুন্সীগঞ্জ শহরের ফ্রেন্ডস কিচেন এন্ড পার্টি প্যালেসের ৩য় তলায় ‘গুনীজন সম্মাননা-২০২০’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এবছর ১৫টি ক্যাটেগরিতে সর্বমোট ৪৫ জনকে ‘গুনীজন সম্মাননা’ দেয়া হয়।

মরণোত্তর সম্মাননা: মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল করিম বেপারী ও মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা খালেকুজ্জামান খোকা।

মুুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও মুক্তিযোদ্ধা: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ হোসেন বাবুল ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কুতুবউদ্দিন আহমেদ

বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও শিক্ষাবিদ: বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সুখেন চন্দ্র ব্যনার্জী (মরণোত্তর), ড. মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, প্রফেসর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ড. মোহাম্মদ জাবেদ হোসাইন, প্রফেসর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, মোহাম্মদ হোসেন বাবুল, শিক্ষক।

চিকিৎসাসেবায় অনন্য অবদানের জন্য: ডাঃ বদিউজ্জামান ভূইয়া ডাবলু, প্রতিষ্ঠাতা, বিক্রমপুর ভুইয়া মেডিকেল কলেজ, সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি।

সমাজ সংস্কারক: ম.মনিরুজ্জামান শরিফ, সভাপতি, মিরকাদিম পৌর নাগরিক কমিটি, মুন্সিগঞ্জ ও অ্যাডভোকেট সুজন হায়দার জনি, আহবায়ক, নাগরিক সমন্বয় পরিষদ, মুন্সিগঞ্জ।

মেধাবী শিক্ষার্থী: প্রাইমারি লেভেল- নুসরাত জাহান আনিশা, পিএসসি ২০১৮ এর কৃতি শিক্ষার্থী, হাইস্কুল লেভেল- সায়মা হোসেন, ২০২০ সালের এসএসসি’র কৃতি শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় লেভেল- আরজু আফরিন ক্যাথী, শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

ক্রীড়া ব্যাক্তিত্ব ও সংগঠন: সমাবেশ ক্লাব (ক্রীড়া সংগঠন), স্বপন কুমার দাস, সাবেক অধিনায়ক, বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল, বিমল চন্দ্র ঘোষ, আন্তর্জাতিক ভলিবল খেলোয়াড়।

সমাজসেবায় বিশেষ ভূমিকার জন্য: ইউজিন ম্রং, মাঠ সংগঠক, অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন প্রোগ্রাম (ওকাপ), জহিরুল ইসলাম লিটু, হাজ্বী আব্দুস সালাম, ফারজান সুমন।

জননিরাপত্তায় বিশেষ অবদানের জন্য: এস এম সাকিব, সহকারী পরিচালক, মুন্সীগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। সালাউদ্দিন গাজী, ওসি (তদন্ত), মুন্সীগঞ্জ সদর থানা

সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য: <br>বাঙালী লোকজ সংস্কৃতি বিকাশে অনন্য ভূমিকা রাখায় আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন পটশিল্পী শম্ভু আচার্য্য।

সাংস্কৃতিক সংগঠক: সাব্বির হোসাইন জাকির, সাধারণ সম্পাদক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, জাহাঙ্গীর আলম ঢালী, সভাপতি, হিরণ কিরণ থিয়েটার মুন্সীগঞ্জ, নাট্যকার ও নির্দেশক- শিশির রহমান, নাট্য ও চলচ্চিত্র অভিনেতা- আশিক চৌধুরী, নৃত্যশিল্পী- সুমি আক্তার, চিত্রশিল্পী- সেন্টু সরকার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা-বাসসের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম ভুঁইয়া।

মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ইষ্টার্ন ইউনিভার্সিটি’র উপাচার্য ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালযয়ের প্রাক্তন প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. সহিদ আকতার হুসাইন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রবীণ আইনজীবি ও বিশিষ্ট ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অ্যাডভোকেট আর্শেদ উদ্দিন চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক প্রবীর কুমার গাঙ্গুলী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ খালেদা খানম, মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন উজ্জ্বল, মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ খোকা।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ‘আমার বিক্রমপুর’ এর প্রকাশক এস এম মাহতাব উদ্দিন কল্লোল।